এজমা

হাঁপানি

হাঁপানি হল একটা শারীরিক অবস্থা যা ভীতি ও উদ্বেগ সঞ্চারিত করে, যখন আসলেই, সেখানে বিচলিত হওয়ার মত কিছুই থাকে না| সহজভাবে বললে, হাঁপানি হচ্ছে একটা শ্বাসপ্রশ্বাসের সমস্যা যা ফুসফুসের সংলগ্ন শ্বাসনালীকে প্রভাবিত করে| যা ঘটছে তা হল যে শ্বাসনালী মাঝে মাঝে কোন কোন বস্তুর প্রতি প্রতিক্রিয়া করে, যার ফলে তার চারিদিকের মাংসপেশি আঁটসাট হয়ে পড়ে; যার জন্যে শ্বাসনালী সংকুচিত হয় এবং নিঃশ্বাসের কষ্ট হতে থাকে| এছাড়া, এটা শ্বাসনালীর ভিতরের আবরণ দ্বারা অতিরিক্ত মিউকাস এর নিঃসরণ ঘটায়, যা শ্বাসনালী সরু হওয়ার প্রবণতা আরও বৃদ্ধি করে| এইগুলি সবই শুনতে ভীতিকর, কিন্তু এটা অতটা বড় কোন ব্যাপার নয়|

“একটা স্বাভাবিক সক্রিয় জীবন থেকে আপনার সরে আসার কোন কারণ সেখানে নেই”
 

সেইজন্য, হাঁপানি কি ক্রমাগত হয়, না কি হয় এবং সেরে যায়? সেখানে মরশুমি হাঁপানি বলে একটা অবস্থা আছে, যেখানে আপনার উপসর্গগুলি একটা ঋতুতে খুব খারাপ হতে পারে, এবং অন্য ঋতুতে দেখা নাও দিতে পারে| এটা একটা ভুল ধারণার সৃষ্টি করে যে হাঁপানি একটা অবস্থা যা খালি তৈরী হয় এবং সেরে যায়, আপাতদৃষ্টিতে যার কোন কারণ নেই| যাই হোক, হাঁপানি আপনার সঙ্গে দীর্ঘদিন ধরে যুক্ত থাকে| কিন্তু আপনি একবার হাঁপানি সম্বন্ধে আরও বেশী জেনে নিলে, হাঁপানি নিয়ন্ত্রণ করা এবং হাঁপানির আক্রমণ আঁচ করা ও প্রতিরোধ করা অতটা কঠিন হয় না|

 

প্রত্যেক লোকের হাঁপানি, অন্যদের থেকে আলাদা হয়| সবথেকে গুরুত্বপূর্ণ জিনিস আপনার যা মনে রাখা দরকার, হল যে সেখানে আপনার মত বহু লোক আছেন, যারা সফলভাবে হাঁপানির ব্যবস্থাপনা করছেন| বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা দেখেছে যে বিশ্বের সর্বত্র প্রায় ৩০০ মিলিয়ন লোকের হাঁপানি আছে, যার মধ্যে ২৫ থেকে ৩০ মিলিয়ন লোক ভারতে আছে| কাজেই, এটা হল একটা সাধারণ অবস্থা, এবং নিশ্চিতভাবে আপনি একাকী নন|

 

ভিডিও : ডাঃ কুমার আইসক্রীম এবং হাঁপানির উপরে এর প্রভাবের বিষয়ে বলছেন 

 

যেখানে, দুর্ভাগ্যবশতঃ, হাঁপানির কোন নিরাময় নেই, আধুনিক ওষুধপত্র এর উপসর্গগুলি সম্পূর্ণভাবে নিয়ন্ত্রণ করা সম্ভব করেছে, যাতে করে আপনি প্রায় ভুলে যেতে পারেন যে আপনার হাঁপানি আছে| অতএব, আপনার হাঁপানি আছে, শুধুমাত্র সেই কারণে একটা স্বাভাবিক সক্রিয় জীবন যাপন থেকে নিজেকে আটকে রাখার কোন দরকার সেখানে আপনার নেই| চলচ্চিত্র শিল্পে, ব্যবসার জগতে এবং এমনকী খেলাধূলার জগতেও বহু বিশিষ্ট ব্যক্তিত্ব আছেন যাদের হাঁপানি আছে, কিন্তু একটা পরিপূর্ণ জীবনযাপন করা থেকে এটা তাদের বিরত করতে পারেনি|   

 

ডান দিকের ব্যানার ১ - পড়ুন যে কিভাবে নেহা তার হাঁপানিকে হারিয়ে দিয়েছেন এবং তার প্রথম ৪ কিমি দৌড়েছেন  [অনুপ্রেরণামূলক গল্প]

ডান দিকের ব্যানার ২ - এমনকী যদি আমার হাঁপানি থাকে, আমি কি ব্যায়াম বা খেলাধূলা করতে পারব? [এফএকিউ] 

ডান দিকের ব্যানার ৩ - যারা তাদের শ্বাস-প্রশ্বাস এর সমস্যা সফলভাবে অতিক্রম করেছেন, তাদের সঙ্গে যোগাযোগ করতে গোষ্ঠীতে [ব্রেদফ্রি গোষ্ঠী] যোগদান করুন|

Please Select Your Preferred Language